বাংলাদেশের জাতীয় বিষয়াবলী

Common sense

বাংলাদেশের জাতীয় বিষয়াবলী

১. বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত : আমার সোনার বাংলা (প্রথম দশ লাইন); রচয়িতা : রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

২. বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা : সবুজ ক্ষেত্রের উপর স্থাপিত রক্তবর্ণের একটি ভরাট বৃত্ত (সবুজের মাঝে লাল বৃত্ত)।

৩. বাংলাদেশের জাতীয় প্রতীক : প্রতীকের কেন্দ্রে পানিতে ভাসমান জাতীয় ফুল শাপলা, উভয় পাশে বেষ্টন করে আছে ধানের দুটি শীর্ষ, চূড়ায় পাটগাছের পরস্পরযুক্ত তিনটি পাতা এবং পাতার উভয় পাশে দুটি করে মোট চারটি তারকা। নকশাবিদ (ডিজাইনার) : পটুয়া কামরুল হাসান।

৪. বাংলাদেশের জাতীয় দিবস : একুশে ফেব্রুয়ারি : ভাষাশহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস; ২৬ মার্চ : স্বাধীনতা দিবস এবং ১৬ ডিসেম্বর : বিজয় দিবস।

৫. বাংলাদেশের জাতীয় মসজিদ : বায়তুল মোকাররম, পল্টন, ঢাকা।

৬. বাংলাদেশের জাতীয় ফুল : শাপলা।

৭. বাংলাদেশের জাতীয় পাখি : দোয়েল।

৮. বাংলাদেশের জাতীয় পশু : রয়েল বেঙ্গল টাইগার।

৯. বাংলাদেশের জাতীয় বন : সুন্দরবন।

১০. বাংলাদেশের জাতীয় মাছ : ইলিশ।

১১. বাংলাদেশের জাতীয় ফল : কাঁঠাল।

১২. বাংলাদেশের জাতীয় গাছ : আম গাছ।

১৩. বাংলাদেশের জাতীয় জাদুঘর : জাতীয় জাদুঘর, শাহবাগ, ঢাকা।

১৪. বাংলাদেশের জাতীয় গ্রন্থাগার : জাতীয় গ্রন্থাগার, শেরে বাংলা নগর, আগারগাঁও, ঢাকা।

১৫. বাংলাদেশের জাতীয় গণগ্রন্থাগার : সুফিয়া কামাল জাতীয় গণগ্রন্থাগার, শাহবাগ, ঢাকা।

১৬. বাংলাদেশের জাতীয় কবি : কাজী নজরুল ইসলাম।

১৭. বাংলাদেশের জাতীয় পার্ক : শিশুপার্ক, শাহবাগ, ঢাকা।

১৮. বাংলাদেশের জাতীয় স্টেডিয়াম : বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম।

১৯. বাংলাদেশের জাতীয় বিমানবন্দর : হজরত শাহ জালাল (রা.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, ঢাকা।

২০. বাংলাদেশের জাতীয় খেলা : হা-ডু-ডু বা কাবাডি।

২১. বাংলাদেশের জাতীয় উদ্যান : ভাওয়াল ন্যাশনাল উদ্যান।

২২. বাংলাদেশের জাতীয় উৎসব : বাংলা বর্ষবরণ উৎসব, পহেলা বৈশাখ।

২৩. বাংলাদেশের জাতীয় চিড়িয়াখানা : ঢাকা চিড়িয়াখানা, মিরপুর।

২৪. বাংলাদেশের জাতীয় নাট্যশালা : শিল্পকলা জাতীয় নাট্যশালা, সেগুনবাগিচা, ঢাকা।

 

২৫. বাংলাদেশের রাষ্ট্রভাষা : বাংলা।

২৬. বাংলাদেশের রাষ্ট্রধর্ম : ইসলাম।

—ডেস্ক বাঙালিয়ানা

উল্লেখ্য, প্রকাশিত লেখা সম্পর্কে যে-কোনো পরামর্শ ও মতামত সাদরে গ্রহণীয়। তা ছাড়া ভুল বানান বা তথ্য অথবা অন্য কোনো অসঙ্গতি দেখা মাত্র অল্প সময়ের মধ্যে তা সংশোধন ও সম্পাদনা করা হয়ে থাকে। সে-কারণে কোথাও ত্রুটি দেখা গেলে অথবা কোনো বিষয়ে প্রশ্ন উদ্রেগ হলে সঙ্গে সঙ্গে আমাদের জানাতে পারেন, কমেন্ট করে অথবা ইমেইলের মাধ্যমে। আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে তা সংশোধন ও পরিমার্জনসহ ত্রুটিহীন করতে দৃঢ় প্রত্যয়ী। সুহৃৎ, আপনার প্রতি কৃতজ্ঞতা ও শুভেচ্ছা। স.

Share us

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *