অর্থনীতি

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

অর্থনীতি, জ্ঞান-বিজ্ঞান, বিজ্ঞান
বিভিন্ন প্রচার মাধ্যম ব্যবহার করে পণ্য ও সেবা কিংবা নতুন ধারণা সম্পর্কে ভোক্তা বা ব্যবহারকারী সকলকে জানানোর একটি ব্যবস্থা বিজ্ঞাপন এটি শুধু জানানোতেই সীমাবদ্ধ থাকে না, সম্ভাব্য ক্রেতা বা ব্যবহারকারীদের কাছে এসবকে আকর্ষণীয়ভাবে উপস্থাপন করে, সেগুলি ক্রয়ে উদ্বুদ্ধ, এমনকি কখনও কখনও প্ররোচিতও করে। আর এই কাজটি করে থাকে বিক্রেতা তথা উৎপাদনকারী নিজে, তার প্রতিনিধি কিংবা বিপণনে নিয়োজিত প্রতিষ্ঠান বা ব্যক্তি। যে মাধ্যমেই বিজ্ঞাপন প্রচারিত হোক, এর জন্য বিজ্ঞাপনদাতাকে ব্যয় বহন করতে হয়। বিজ্ঞাপনের ধরন নির্বাচন, তার জন্য কথা বা ছবি সাজানো এবং তার উপস্থাপনা, প্রকাশনা, প্রচারণা ইত্যাদি অতীতে ব্যক্তিগতভাবে বা বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানের নিজ স্থাপনা ও জনবলের সাহায্যে সম্পাদিত হলেও এখন এসব একটি সুসংগঠিত পেশার কাজ এবং এসবের জন্য আছে ছোটবড় বিভিন্ন বিশেষায়িত বিজ্ঞাপনী প্রতিষ্ঠান। বাংলাদেশে বিজ্ঞাপনের অস্ত...
শিল্পোদ্যোগ

শিল্পোদ্যোগ

অর্থনীতি
উৎপাদন প্রক্রিয়া ও অথনৈতিক উন্নয়নের প্রধান উপাদান শিল্পোদ্যোগ শিল্পোদ্যোগ অর্থনৈতিক উন্নয়নের সহায়ক কার্যাবলীকে নির্দেশ করে। অধ্যাপক ই.ই হ্যাগেন শিল্পোদ্যোগের ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে বলেন, এর কাজ হচ্ছে বিনিয়োগ ও উৎপাদনের সুযোগ সৃষ্টি, নতুন উৎপাদন প্রক্রিয়া শুরু করার জন্য একটি প্রতিষ্ঠান সংগঠন, মূলধন সংগ্রহ, প্রয়োজনীয় কাঁচামালের সংস্থান, নতুন উৎপাদন কৌশল এবং নতুন পণ্য উদ্ভাবন কাঁচামালের নতুন উৎস সন্ধান এবং সর্বোপরি প্রতিষ্ঠানের দৈনন্দিন কার্যাবলী পরিচালনার জন্য একজন দক্ষ ব্যবস্থাপক নির্বাচন করা। বস্তুত শিল্পোদ্যোগ একজন ব্যক্তির এমন কর্মদ্যোগ ও গুণাবলীকে বুঝায় যা তাকে একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান শুরু এবং সংশ্লিষ্ট ঝুঁকি বহন করে সাফল্যের দ্বারে পৌঁছাতে সাহয্য করে। যে ব্যক্তি এসব কাজ যথার্থভাবে সম্পাদন করতে পারেন তিনিই শিল্পোদ্যোক্তা। শিল্পোদ্যোক্তার উদ্যোগী কর্ম প্রচেষ্টার সৃষ্ট ফল একটি প্...
যজমানি প্রথা

যজমানি প্রথা

অর্থনীতি
আধুনিক বাজার অর্থনীতিপূর্ব সময়ের স্বনির্ভর গ্রামীণ অর্থনীতি ব্যবস্থার একটি আর্থ-সামাজিক প্রথা যজমানি প্রথা বর্ণাশ্রম এবং প্রচলিত প্রথায়ই তখন গ্রামীণ সমাজের অর্থনৈতিক, সামাজিক ও ধর্মীয় বিষয় নিয়ন্ত্রিত হতো। গ্রামীণ জীবনধারা তখন পুঁজি ও মুক্তশ্রম ছাড়াই অব্যাহত ছিল। বস্ত্তত, যজমানি প্রথা এমন একটি পূর্ণাঙ্গ পদ্ধতি যেখানে গ্রামবাসীরা তাদের পণ্য ও সেবা পরস্পর বিনিময় করত। যজমানি প্রথার দুটি অর্থব্যঞ্জনা রয়েছে, একটি ধর্মীয় ও অন্যটি আর্থিক। ধর্মীয় দিক থেকে যজমান হলেন এমন এক ব্যক্তি যিনি ভাবগম্ভীর ধর্মীয় উৎসব উদযাপনের জন্য ধর্মগুরুদের নিয়োগ দেন এবং তাদের অর্থ দান করেন। সাধারণত উৎসব পালনের জন্য একই ধর্মগুরুকে বরাবর আমন্ত্রণ জানানো হয় এবং তাকে প্রদেয় অর্থ প্রথামাফিক এমনকি বংশপরম্পরাগতও হয়ে থাকে। ধর্মগুরু ঐ উৎসব পালন না করলেও তাকে প্রথানুগ ভাতা প্রদানে যজমান সাধারণত বাধ্য থাকেন। ধর...